Published On: বৃহঃ, সেপ্টে ২৮, ২০১৭

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও দেশের জনগণই রোহিঙ্গাদের ভরসা

একটি স্বাধীন দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও বহিরাগত শত্রুর আক্রমণ থেকে দেশকে রক্ষা করা সেনাবাহিনীর প্রধান কাজ। কিন্তু বিশ্ব জুড়ে চলছে সেনাবাহিনীর অপব্যবহার। তার প্রমাণ আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ মায়ানমার। সেখানে নিরিহ মানুষ গুলোকে নিষ্ঠুরভাবে মারা হচ্ছে। স্বাধীনতার যুদ্ধের সময় ও সেনাবাহিনীকে বলা হয়ে থাকে নারী, শিশু ও নিরঅস্র কোন মানুষকে হত্যা করা যাবে না। অথচ কি দেখছি আমরা। মায়ানমার আরাকানে নির্বিচারে হচ্ছে নারী, শিশুসহ বৃদ্ধকে হত্যা করছে। গ্রামের পড় গ্রাম জ্বালিয়ে দিচ্ছে সে দেশের সেনাবাহিনী। কি অপরাধ তাদের। সে দেশে কি বিচার ব্যবস্থা নেই। যদি তারা অপরাধী হয়ে থাকে সে দেশের আইনের মাধ্যমে বিচার হওয়া উচিৎ।

কিন্তু নির্বিচারে এভাবে মানুষ হত্যা করার অধিকার কোন রাষ্ট্রের নেই। তাদের অপরাধ বলছে সরকার তাহলে সাংবাদিকসহ বিশ্বের সকল সংস্থাকে ঢুকতে দিচ্ছেনা কেন? বাংলাদেশে আসা প্রায় আট লক্ষাধিক ( ৮,০০,০০০) মানুষ কি মিথ্যা বলছে? নাফ নদীতে ভেসে আসা লাসের গায়ের বুলেট কি মিথ্যা বলছে? বাংলাদেশের সীমান্ত থেকে দেখা যায় কিভাবে আগুন জ্বলছে। অপর দিকে বিশ্ব আজ নিরব। বিশ্ব নেতারা শুধু উহ! শব্দই করছে। সন্ত্রাসী কারা তা বিশ্ব বিবেক আজ দেখছে। কারা জঙ্গি তা বিশ্ব দেখছে। বাংলাদেশর প্রশাসন ও জঙ্গি দমন করছে। তারা এভাবে সংখ্যালঘু মানুষ হত্যা করে না।

বাংলাদেশের সেনাবাহিনী ও পারে যেকোনো সময় একটি দেশকে আক্রমণ করতে। সেই দেশকে স্বাধীন বাংলাদেশ বা বাংলাদেশর অংশ হিসেবে ঘোষণা করতে। কিন্তু বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের সেনাবাহিনী শান্তিতে বিশ্বাসী বাংলাদেশের মানুষ মানবতায় বিশ্বাসী। আমাদের সেনাবাহিনী যেমন পারে অন্যায় কারিকে হত্যা করতে তেমনি সেই হাতেই পারে মানব সেবা করতে।

মায়ানমার থেকে আসা নিরীহ মানুষ গুলোর সে কি করুণ অবস্থা। শিশু, নারী বৃদ্ধ মানুষ গুলো কি অপরাধ করেছিল। শরণার্থী শিবির গুলো ঘুড়ে দেখলে বোঝায় কি নিষ্ঠুরতা করা হয়েছে তাদের উপর। আজ আমাদের সেনাবাহিনী অস্রের পরিবর্তে ধরেছে মানবতা। দেশের মানুষ যার যার অবস্থান থেকে যাপারে তাই নিয়ে তাদের সাহায্য করছে।

সেই সকল ত্রান বাংলাদেশ সেনা বাহিনী শরণার্থী শিবির গুলো ঘুড়ে ঘুড়ে বিতরণ করছে। অন্যান্য দেখ ও বিভিন্ন সংঙ্গয়েস্থা শুধু ত্রান ও বিবৃতি দিয়েই শেষ। রোহিঙ্গা মুসলমানদের স্বদেশে ফিরিয়ে নেওয়া এবং অপরাধীদের কোন মায়ানমার সেনাবাহিনীদের বিচারের আওতায় আনার কোন উদ্দ্যোগ নেই।

 

আরও খবর

(Visited 1 times, 1 visits today)

Editor : Rahmatullah Bin Habib


55/B, Purana Palton, Dhaka-1000


Email : nobosongbad@gmail.com


copyright @nobosongbad.com


বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও দেশের জনগণই রোহিঙ্গাদের ভরসা